শাওমি মি ১১ লাইট ৫জি এসই (Xiaomi Mi 11 Lite 5G SE): ২৬,০০০ টাকায় বেস্ট ফ্লাগশিপ কিলার?

Olee
পোকো এফ৩-এর পর শাওমির ২৫,০০০ থেকে ৩০,০০০ টাকা বাজেটে সেরা আরু একটা স্মার্টফোন নিয়ে কথা হবে। এই ফোনটা ইন্টারন্যাশনাল মার্কেটে আসছে অনেক আগেই এবং এটা বাংলাদেশে অফিশিয়াল মার্কেট রিলিজ হয়েছে এবছরের শুরুর দিকে।


শাওমি মি ১১ লাইট ৫জি এসই (Xiaomi Mi 11 Lite 5G SE) আনঅফিসিয়ালী ও অফিসিয়ালী এভ্যাইলেবল। দেশের বাজারে এর আনঅফিসিয়াল দাম ৬+১২৮ জিবি ভেরিয়ান্টের দাম ২৬,৫০০টাকা; ৮+১২৮জিবি ২৮,০০০টাকা ও ৮+২৫৬জিবি ৩০,৫০০টাকা। 


আনঅফিসিয়াল প্রাইস রেঞ্জের ৩০ হাজারের ভিতরে হলেও অফিশিয়াল প্রাইসটা একটু বেশি বলা যায়। অফিশিয়ালি ওই ফোনটা কিনতে গেলে একটু বেশি টাকা দিতে হবে, যা আমাদের অনেকের বাজেটে ফিট হবে না। তারপরও অফিশিয়াল হ্যান্ডসটের একটা মজা আছে। যারা এই মজাটা নিতে চান রিস্ক নিতে চান না তাদের জন্য অফিশিয়াল প্রাইজ উল্লেখ করলাম। 

অফিশিয়াল বর্তমান মার্কেট প্রাইজ ৩৫,৯৯৯ টাকা ১২৮+৬ জিবি; ৪০,৯৯৯টাকা ১২৮+৮জিবি ও ৪৩,৯৯৯টাকা ২৫৬+৮জিবি ভেরিয়ান্ট।


এক নজরে শাওমি মি ১১ লাইট ৫জি এসই (Xiaomi Mi 11 Lite 5G SE) স্পেসিফিকেশন:

 বডি: ১৬০.৫*৭৫.৭*৬.৮ মিলিমিটার, ১৫৮ গ্রাম; গ্লাস ফ্রন্ট (গরিলা গ্লাস ৫), গ্লাস ব্যাক, প্লাস্টিকের ফ্রেম। আইপি৫৩ স্প্লাশ ও ডাস্ট প্রোডাকশন।

ডিসপ্লে: ৬.৫৫ ইঞ্চি এমোলেড, ৯০হার্জ রিফ্রেশ রেইট, এইচডিআর১০+, ১০৮০*২৪০০ রেজোলিউশন, ২০:৯ অ্যাসপেক্ট রেশিও ও ৪০২ পিপিআই। 

প্রসেসের ও হার্ডওয়ার: স্নাপড্রাগন ৭৭৮ - অক্টাকোর (1x2.4 GHz Kryo 670 & 3x2.4 GHz Kryo 670 & 4x1.80 GHz Kryo 670); জিপিউ - অ্যাড্রেনো ৬৪২এল। ৫জি নেটওয়ার্ক সাপোর্টেড চিপ। ৬ ন্যানোমিটার আর্কিটেকচারে তৈরি।

স্টোরেজ: ১২৮ জিবি স্টোরেজ + ৬জিবি র্যাম; ১২৮ জিবি স্টোরেজ + ৮জিবি র্যাম; ২৫৬ জিবি স্টোরেজ + ৮জিবি র্যাম; স্টোরেজ ইউএফএস ২.২। এক্সট্রানাল মেমোরী কার্ড ব্যবহার করলে একটি সিম ব্যবহার করতে পারবেন। 

সফ্টওয়্যার: অ্যান্ড্রয়েড ১১; এম আইইউআই ১২.৫।

রিয়ার ক্যামেরা: মেইন - ৬৪ মেগাপিক্সেল f/১.৮; আল্ট্রা ওয়াইড - ৮ মেগাপিক্সেল f/২.২; ম্যাক্রো-; ৫ মেগাপিক্সেল f/২.৪ ।

সামনের ক্যামেরা: ২০ মেগাপিক্সেল, f/২.৪ ।

ভিডিও রেকর্ডিং: রিয়ার ক্যামেরা - 4K@30fps, 1080p@30/60/120fps; gyro-EIS; ফ্রন্ট ক্যামেরা- 1080p@30/60fps, 720p@120fps।

ব্যাটারি: ৪২৫০ এমএএইচ; ফাস্ট চার্জিং ৩৩ ওয়াট; ফুল চার্জ ১০০% ৪০ মিনিটে। বক্সে ৩৩ ওয়াটের চার্জার দেওয়া হয়েছে।

বিবিধ: ফিঙ্গারপ্রিন্ট রিডার (সাইডমাউন্ট); স্টেরিও স্পিকার; এনএফসি; ইনফ্রারেড পোর্ট। মাল্টি-মিডিয়া উপভোগের জন্য স্টেরিও স্পিকার থাকার পরেও ফোনটিতে ৩.৫ এমএম অডিও জ্যাক নাই। তবে শাওমি কোম্পানি এই ফোনেও শাওমি পোকো এফ ৩ (Xiaomi Poco F3) এর মতো করে বক্সে ৩.৫ এমএম অডিও জ্যাক জন্য অ্যাডাপ্টার দিয়েছে।



 শাওমি মি ১১ লাইট ৫জি এসই (Xiaomi Mi 11 Lite 5G SE) ফোনটি স্পেশালি কাদের জন্য? আগের ফোন গুলা অনেক মোটা ধরনের ছিল। চিকন ও পাতলা গড়নের ফোন গুলা দেখতে সুন্দর ও ওজনে হালকা যার কারণে ইন-হ্যান্ড ফিলটা অনেক ভালো লাগে।


শাওমি মি ১১ লাইট ৫জি এসই (Xiaomi Mi 11 Lite 5G SE) এর ভাল দিক:

 - ফ্রস্টেড ফিনিশ সহ মসৃণ, প্রিমিয়াম এবং খুব পাতলা কাচের বডি।

- চমৎকার ওএলইডি স্ক্রিন, ১০ বিট কা সাপোর্ট, ৯০ হার্জ রিফ্রেশ রেট, এইচডিআর ১০+।

 - চমৎকার ব্যাটারি লাইফ, আগের চেয়েও দ্রুত ফাস্ট চার্জিং।

 - স্টেরিও লাউড স্পিকার

- নাইট মোড সহ সমস্ত ক্যামেরাতে চমৎকার দিনের আলোয় ফটো এবং ভিডিও।

- অ্যান্ড্রয়েড ১১; এমআইইউআই ১২.৫।

 - Mi 11 Lite 5G এর মতো একই প্রসেসর পারফরম্যান্স। তারপর ৮জিবি সংস্করণের দাম 6GB Mi 11 Lite 5G এর মতো।


শাওমি মি ১১ লাইট ৫জি এসই (Xiaomi Mi 11 Lite 5G SE) এর মন্দ দিক:

 - ৩.৫ এমএম জ্যাক নেই, মাইক্রোএসডি মেমোরি সুবিধা নেই, এফএম রেডিও নেই।

 - আসল Mi 11 Lite 5G এর তুলনায় গেইমিং এ পারফরম্যান্সে কম।

 - একই দামের মধ্যে আরও ভাল বিকল্প আছে। যেমন- রিয়েলমি জিটি মাস্টার, রিয়েলমি জিটি এনইও, গ্যালাক্সি এম৫২ এস ৫জি, পোকো এফ৩, শাওমি মি ১১এক্স ও রিয়েলমি ৮ প্রো, রেডমি নোট ১১ প্রো।

#buttons=(Accept !) #days=(20)

Our website uses cookies to enhance your experience. Learn More
Accept !
To Top